'সোঁদামাটি' সাহিত্য পত্রিকা ও 'ঐতিহাসিক মুর্শিদাবাদ' ফেসবুক গ্রুপের যৌথ উদ্যোগে এই ওয়েবসাইট।

হাজারদুয়ারী প্যালেস‬


                               ( ছবিঃ হাজারদুয়ারী প্রাসাদ ) 



পশ্চিম বাংলার মুর্শিদাবাদ জেলার বর্তমানে সবচেয়ে আকর্ষণীয় জায়গা হাজারদুয়ারী প্যালেস। পুরো চত্বরে আরও অনেক কিছু দেখার আছে, সব মিলিয়ে এটি একটি চমৎকার পর্যটন কেন্দ্র।

বর্তমান হাজারদুয়ারী ভবন নির্মিত হয়েছিল নবাব সিরাজ-উদ্-দৌলার পতনের পর মীরজাফরের পঞ্চম পুরুষ নবাব হুমায়ুন জা'র আমলে। ১৮২৯ সালের ২৯ আগস্ট ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করে ১৮৩৭ সালের ডিসেম্বরে এর নির্মাণকাজ শেষ হয়। ভবনটি লম্বায় ৪২৫ ফুট, চওড়া ২০০ ফুট। স্থাপত্য শিল্পকলা গ্রিসিয়ান ডোরিক। নির্মাণব্যয় তৎকালীন সাড়ে ১৬ লাখ টাকা। এর দরজা-জানালার সংখ্যা মোট এক হাজার। ৯শটি আসল, বাকি ১শটি নকল। সে কারণেই এরূপ নামকরন। এই প্রাসাদ ইউরোপিয় ধাঁচে বানানো৷ ভাগীরথী নদীর তীরে অবস্থিত৷ তিনতলায় বেগম ও নবাবদের থাকার ঘর, দোতলায় দরবার হল, পাঠাগার, অতিথিশালা এবং একতলায় নানা অফিসঘর ও গাড়ি রাখার জায়গা আছে ৷ বর্তমানে ভারতের পুরাতত্ত্ব সর্বেক্ষন এখানে একটা মিউজিয়াম বানিয়েছেন ৷ তবে দুর্বল কাঠামোর জন্য দর্শকদের তিনতলায় উঠতে দেওয়া হয় না ৷ শুক্রবার মিউজিয়াম বন্ধ থাকে ৷  



শেয়ার করুন

No comments:

Post a Comment